কুকুরের হাঁটা এবং ব্যায়ামের প্রয়োজনীয়তা এবং নিয়মাবলী

জন্মগতভাবেই কুকুর খেলাধুলা করতে, দৌড়াতে, শিকার করতে ভালবাসে। এর ফলে তাকে বেশি সময় কোথাও আটকে রাখলে অথবা বেঁধে রাখলে তার কাছে তা পছন্দনীয় নয়। এছাড়া মানসিক এবং শারীরিক সুস্বাস্থ্যের জন্য কুকুরের খেলাধুলা এবং ব্যায়াম খুবই প্রয়োজনীয়।

পর্যাপ্ত খেলাধুলা এবং ব্যায়ামের অভাবেঃ

  • ধ্বংসাত্মকভাবে জিনিসপত্র চাবায়, আঁচড়ায় এবং ছিঁড়ে ফেলতে চাইবে।
  • সবসময় কিছু খোঁজার মত আচরণ করবে, ময়লার মধ্যে খুঁজবে এবং মাটি খুঁড়বে।
  • রাতে জেগে থাকবে, উত্তেজিত থাকবে এবং ডাকাডাকি করবে।
  • বেশিরভাগ সময় মন খারাপ থাকবে এবং depression এ চলে যাবে।
  • মানুষের মনোযোগ আকর্ষণ করার জন্য ডাকাডাকি করবে অথবা কাপড় কামড়ে ধরে টানবে।
  • মানুষের উপর ঝাপিয়ে পড়বে, Roughly বা অমার্জিতভাবে খেলবে এবং কামড়াবে।

খেলাধুলা এবং ব্যায়ামের উপকারিতাঃ

  • ধ্বংসাত্মকভাবে জিনিসপত্র নষ্ট করবে না।
  • মাটি খোঁড়া, খোঁজাখুঁজি করা বন্ধ করবে।
  • কুকুরের স্বাস্থ্য ভালো থাকবে এবং অতিরিক্ত ওজন হবে না, রোগমুক্ত থাকবে।
  • কুকুরের মন ভালো থাকবে, আচরণ শান্ত থাকবে এবং প্রফুল্লভাবে চলাফেরা করবে।
  • কোস্টকাঠিন্য হবে না, হজম প্রক্রিয়া ভালো হবে।
  • ঘুমের সময় ক্লান্ত থাকবে ফলে অস্থির ব্যাবহার করবে না।

হাঁটানো এবং ব্যায়ামের কিছু নিয়মঃ

  • শক্তিশালী কুকুরের জন্য ব্যায়াম প্রয়োজন। দুর্বল, অসুস্থ কুকুরকে হাঁটানোর প্রয়োজন নেই।
  • লম্বা লোমওয়ালা কুকুর এবং খাটো নাকওয়ালা কুকুরকে ব্যায়াম খুব কম করাতে হবে। বিশেষ করে গরমকালে। বেশি গরমে হিটস্ট্রোকে করতে পারে এবং খাটো নাকওয়ালা কুকুরের নিঃশ্বাস নিতে কষ্ট হয়।
  • হাঁটার সময় অবশ্যই Dog Leash with Harness ব্যাবহার করবেন। এতে কুকুর হারানো, অন্য কুকুরকে আক্রমন থকে নিরাপদ থাকবে।এবং সে আপনার সাথে সাথে থাকবে।
  • একদিনে বেশিক্ষণ হাঁটানো এবং ব্যায়াম করানো যাবে না।। সময় আস্তে আস্তে বাড়াতে হবে।
  • ১৮মাসের নিচের কুকুরকে ব্যায়াম করানোর প্রয়োজন নেই।
  • ব্যথা পাওয়া এবং হাড়ে ব্যথা অথবা ভাঙ্গা এমন কুকুরকে হাঁটানো যাবে না।
  • খাওয়ার ঠিক কিছুক্ষন আগে এবং পড়ে হাঁটানো উচিৎ নয়।dog-walking-rules-and-benefits2