বয়স অনুযায়ী বিড়ালের খাদ্য তালিকা

food-routine-according-to-age

০সপ্তাহ – ৪ সপ্তাহ :  মায়ের দুধ এসময় বিড়ালের জন্য আদর্শ খাদ্য। এসময় বিড়াল শুধুমাত্র লিকুইড/তরল খাবার খেতে পারে। কোন শক্ত খাবার খাওয়ার প্রয়োজন নেই। বাচ্চাটি যদি orphan হয় সেক্ষেত্রে baby feeder/dropper/syringe এ করে গরুর তরল দুধ অথবা পাউডার দুধ খাওয়াতে হবে। দুধ ঘন হলে বাচ্চার ডায়রিয়া হয়ে যেতে পারে। তাই সমান পরিমান পানির সাথে (১কাপ তরল দুধ=১কাপ পানি এই অনুপাতে) মিশিয়ে, পাউডার হলে খুব পাতলা করে গুলিয়ে তারপর বাচ্চাটিকে খাওয়াতে হবে। গরুর দুধে lactose বেশি থাকার কারনে এই বিড়ালের জন্য ক্ষতিকর।  এছাড়া বিভিন্ন pet shop এ orphan বিড়ালের বাচ্চাদের জন্য kitten formula কিনতে পাওয়া যায় যা মায়ের দুধের বিকল্প হিসেবে ব্যাবহার করা যায়। চার সপ্তাহ বয়স পর্যন্ত প্রতি ২-৩ ঘণ্টা পরপর এভাবে খাওয়াতে হয়।

৪সপ্তাহ – ১২ সপ্তাহ : এসময় বিড়ালের বাচ্চা দুধের পাশাপাশি অন্য খাবার খেতে পারে। বিভিন্ন খাবার যেমন- কাঁটা ছাড়া মাছ, থেঁতলানো সেদ্ধ মাংস (মশলা ছাড়া) ইত্যাদি খেতে দিতে হবে। ভাত দিতে চাইলে অল্প পরিমানে ভাত মিশাতে হবে। খাবারটি ভালভাবে থেঁতলিয়ে একটু পানি মিশিয়ে নরম করে দিতে হবে। Kitten Food খাওয়ানো যায় এবং প্রয়োজনে পানি মিশিয়ে নরম করে দিতে হবে। প্যকেট এর গায়ে ওজন অনুযায়ী খাওয়ানোর নির্দেশনা দেওয়া থাকে। এসময় বাচ্চাদের অধিক পুষ্টি প্রয়োজন হয় যা Kitten Food এ পাওয়া যায়। দিনে ৩-৫ বার বাচ্চাকে খাওয়াতে হবে এবং ধীরে ধীরে দুধ খাওয়ানো কমিয়ে আনতে হবে। তবে ৮-১০ সপ্তাহ বয়সের পরে আর দুধ খাওয়ানোর প্রয়োজন নেই।

১২সপ্তাহ/৩মাসের পর থেকে : এসময় বিড়াল সব ধরনের খাবার যেমন- বিভিন্ন ধরনের মাছ, মুরগির মাংস, গরুর মাংস,  ডিম, Cat wet food, Cat dry food ইত্যাদি খায়। সাথে প্রচুর পরিমানে বিশুদ্ধ পানি খেতে দিতে হবে। যেহেতু বিড়াল মাংসাশী প্রাণী তাই ভাত দিলেও অল্প ভাতের সাথে বেশি মাংস মিশিয়ে খাওয়াতে হবে। তবে খাবারটি অবশ্যই তেল , মশলা , লবন , চিনি, পেঁয়াজ , রসুন ছাড়া শুধু পানিতে সেদ্ধ করে দিতে হবে। কাঁচা মাছ মাংস না খাওয়ানো ভালো কারন এতে ব্যাকটেরিয়া থাকে ফলে বিড়াল রোগে আক্রান্ত হয়। এসময় তাকে দিনে ২-৩বার খাওয়াতে হবে।

Pregnant এবং মা বিড়ালের খাবার : বিড়ালের গর্ভাকাল(Gestation) এর সময় আনুমানিক ৯সপ্তাহ।food-routine-according-to-age2 এসময় একটি Pregnant বিড়ালের খাবারের চাহিদা ৫০গুন বেশি বেড়ে যায়। এসময় বেশি পুষ্টিকর খাবার খাওয়াতে হবে এবং আলাদা ভাবে যত্ন নিতে হবে। অন্যান্য খাবারের পাশাপাশি kitten food খেতে দেওয়া যায় কারন এতে আলাদা পুষ্টি থাকে। বাচ্চা হওয়ার পর বাচ্চাদের দুধ খাওয়ানোর সময়ও মা বিড়ালের আলাদা পুষ্টির প্রয়োজন হয়। বাচ্চা হওয়ার ৮-৯ সপ্তাহ পর মা বিড়ালের দুধ উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়। তখন সে আস্তে আস্তে আগের খাবারের পরিমানে ফিরে আসে। এসময় বিড়ালের স্বাস্থ্য খারাপ হয়ে যেতে পারে তাই অতিরিক্ত ওজন কমে গেলে vet এর সাথে যোগাযোগ করতে হবে।