how to harness leash train a cat1

কিভাবে বিড়ালকে Harness এবং Leash train করবেন

আপনার যদি একটি  indoor পোষা বিড়াল থাকে, যে কিনা বেশিরভাগ সময় জানালায় বসে বাইরে তাকিয়ে থাকে অথবা আপনার সাথে বাইরে হাঁটতে যায়, তাহলে আপনার বিড়ালটির জন্য Harness  এবং leash খুবই গুরুত্বপূর্ণ। Harness/Vest বিড়ালের গায়ে পরিয়ে দিতে হয় এবং leash হল লম্বা ফিতা যা Harness/Vest এর সাথে আটকানো থাকে। কোথাও বেড়াতে গেলে অথবা vet এর কাছে নিয়ে যাওয়ার সময় এটি ব্যাবহার করা যায়। এটি ব্যাবহারের কিছু সুবিধা আছে যা হল-

  • বিড়াল ভয় পেয়ে পালিয়ে যেতে পারবে না সুতরাং এটি আপনার বিড়ালকে নিরাপদে রাখবে।
  • বাইরের কুকুর বিড়াল থেকে সুরক্ষা করবে।
  • ব্যায়াম ও হাঁটা হবে যাতে তাদের শরীর সুস্থ ও ভাল থাকবে এবং ওজন নিয়ন্ত্রনে থাকবে।
  • বিড়ালটি আপনার সাথে সাথে থাকবে এবং প্রয়োজনে কোথাও বেঁধে আপনি কাজ করতে পারবেন।

how to harness leash train a cat2

যেভাবে বিড়ালকে Harness train করবেনঃ

১। প্রথমে বিড়ালের সাইজ অনুযায়ী সঠিকভাবে Harness নির্বাচন করুন। এটি খুব গুরুত্বপূর্ণ কারন ছোট হলে বিড়াল ব্যাথা পাবে অথবা অস্বস্তি হবে, সাইজে বড় হলে Harness খুলে যেতে পারে।

২। Harness টিকে বিড়ালের খাওয়া ও ঘুমানোর জায়গার কাছে রাখুন যাতে সে Harness টির সাথে পরিচিত হতে পারে।

৩। Harness টি পরানোর সাথে সাথে leash( ধরে রাখার লম্বা ফিতা) টি লাগাবেন না। বিড়ালটিকে Harness পরে অভ্যস্ত হতে সময় দিন।

৪। প্রথমে অনেক বিড়াল Harness পড়তে চায় না। চিন্তিত না হয়ে ধৈর্য ধরুন। বকা না দিয়ে আদরের স্বরে তার সাথে কথা বলুন। এমন কিছু করবেন না যাতে সে ভয় পায়।

৫। Harness পরা অবস্থায় তাকে treat দিন। এতে বিড়াল Harness পড়তে উৎসাহী হবে।

৬। কিছুক্ষন পর Harness টি খুলে দিন, ২০-৩০ মিনিট পর আবার পরিয়ে দিন। এভাবে কয়েকবার করুন।

৭। এরপর Harness এর সাথে leash যুক্ত করুন। বিড়ালটিকে ঘরের ভেতর হাঁটাতে চেষ্টা করুন। এভাবে ২-৩ দিন ঘরের ভেতর ট্রেনিং দিন।

৮। ঠিকভাবে হাঁটতে শিখে গেলে বাইরে কাছাকাছি কোথাও হাঁটতে নিয়ে যান। প্রথম দিন কম সময় হাঁটুন।

৯। রৌদ্রজ্জ্বল দিনে নিয়মিত বাইরে নিয়ে গিয়ে তাকে হাঁটাতে পারবেন। এতে আপনার প্রিয় বিড়ালটি নিরাপদে থাকবে।

stop-awaking-cat-whole-night

বিড়ালের রাতে জেগে থাকা অভ্যাস দূর করতে করণীয়

বিড়াল স্বভাবত শান্ত প্রাণী। তবে ছোটবড় সববয়সী বিড়াল শিকার ধরতে এবং খেলাধুলা করতে খুব পছন্দ করে। অনেক বিড়াল সারাদিন ঘুমায় এবং দিনের আলো কমার সাথে সাথে active হতে শুরু করে। অন্ধকারে এদের ইন্দ্রিয় বেশি কাজ করে, বিশেষ করে রাতেরবেলা গাড় অন্ধকারের মধ্যেও এরা নির্দ্বিধায় চলাফেরা করতে পারে এবং মানুষের তুলনায় ৬ভাগের ১ভাগ আলোর প্রয়োজন হয়। খুব ছোট নড়াচড়া এবং ছোট জিনিসের উপস্থিতিও এরা বুঝতে পারে। আর তাই বেশিরভাগ সময় শিকার ধরার জন্য এরা রাতে জেগে থাকে। এছাড়া আপনি ঘুমালে আপনাকে বিরক্ত করবে, মিউ মিউ করে আপনাকে জাগানোর চেষ্টা করবে এবং আপনার সাথে খেলতে চাইবে। তখন তাকে অন্য ঘরে আটকে না রেখে এবং না তাড়িয়ে দিয়ে বিড়ালটির অভ্যাসে পরিবর্তন আনার চেষ্টা করুন।

  • বিড়ালকে দিনেরবেলা ব্যস্ত রাখুন – দিনের বেলা আপনি যখন কাজকর্ম করবেন তখন আপনার পোষা বিড়ালটিকেও বিভিন্নভাবে ব্যস্ত রাখুন। বাজারে বিভিন্ন ধরনের বিড়ালের খেলনা (Cat Toy) কিনতে পাওয়া যায়। ব্যাটারিচালিত অথবা নড়াচড়া করে এমন ধরনের খেলনা দিন যা দিয়ে খেলতে বিড়াল আনন্দবোধ করে। ঝুলন্ত খেলনা দিয়ে খেলতেও বিড়াল খুব ভালবাসে। প্রয়োজনে খেলনার গায়ে (Cat Nip ) মাখিয়ে দিন। এতে বিড়ালের কাছে খেলনাগুলো আরও আকর্ষণীয় মনে হবে। এছাড়া অনেক বিড়াল টিভি দেখতে পছন্দ করে। সুতরাং তাকে টিভি দিয়ে ব্যস্ত রাখুন।
  • পোষা বিড়ালটিকে সময় দিন – সারাদিন কাজের পর বাসায় এসে অন্তত ১৫-২০ মিনিট বিড়ালটির সাথে খেলাধুলা করুন। তাকে আদর করুন এবং তার সাথে বিভিন্ন কথা বলুন। অনেক বিড়াল মানুষের সঙ্গ খুব পছন্দ করে। এরপর রাতের খাওয়া খাওয়ানোর পর আপনার সাথে ঘুমাতে নিয়ে যান।
  • একটি বিড়াল হলে তার সঙ্গী এনে দিন- একা থাকতে কেউ পছন্দ করে না বিড়ালের ক্ষেত্রেও এটাই স্বাভাবিক। একটি বিড়াল তার খেলার সাথীর সাথে যেভাবে খেলবে, মানুষ চেষ্টা করলেও তা পারবে না। একটি বিড়াল খেলনার দিয়ে খেলে bore হয়ে যায় কিন্তু দুইটি বিড়াল থাকলে তারা একটি সাধারন কাগজের বলকেও আকর্ষণীয় বানিয়ে খেলতে থাকে। তারা একসাথে খাওয়াদাওয়া করে একসাথে ঘুমায়। এতে মানসিকভাবে বিড়াল সুস্থ থাকে এবং একাকীত্ব বোধ করে না।
allergy to cats

Allergy to cats? আপনার যদি Cat Allergy থাকে তাহলে যেভাবে বিড়াল পুষবেন

বিড়ালে এলার্জি (Cat Allergy) কি?

বিড়ালের এলার্জি (Cat Allergy) হল এক ধরনের এলার্জি যা বিড়ালের লোমের সংস্পর্শে এলে এর উপসর্গ প্রকাশ পায়। অনেকের ধারনা বিড়ালের লোমে এলার্জি হয় অথবা বিড়াল ঘরে থাকলে এলার্জি হয়। কিন্তু এটা সব সময় সঠিক নয়। যাদের ধূলাবালি(Dust Allergy), ফুলের পরাগ ও গন্ধ, বিভিন্ন পোকা ইত্যাদিতে এলার্জি থাকে তাদের পোষা প্রাণীর লোম বা পশমেও এলার্জি থাকে। তবে কিছু বিড়াল এলার্জি বহন করতে পারে। Fel d 1 and Fel d 4 প্রোটিন বিড়ালের এলার্জি জন্য দায়ী। হালকা রঙের এবং মেয়ে বিড়ালের Fel d 1 প্রোটিন কম থাকে। সুতরাং এলার্জি কম হয়।

বিড়ালে এলার্জি (Cat Allergy) এর উপসর্গ

  • কাছাকাছি বিড়াল থাকলে হাঁচি আসতে থাকে এবং নাক লাল হয়ে পানি পড়তে থাকে।
  • গলা চুলকায় অথবা কাশি আসে।
  • চোখ লাল হয়ে চুলকায় এবং চোখ দিয়ে পানি ঝরে।
  • মুখে এবং বুকে ফুসকুড়ি অথবা rash এর মত উঠে।
  • বিড়াল কোথাও আঁচড় বা কামড় দিলে সেই জায়গাটি ফুলে যায়, লাল হয়ে যায় এবং চুলকায়।
  • অ্যাজমা রোগীদের শ্বাসকষ্ট হয়।

যদি কারো Cat Allergy থাকে তাহলে এই উপসর্গ দেখা দেয়। তখন বুঝতে হবে যে ঐ ব্যক্তির Cat Allergy আছে। অনেক সময় অন্য কিছুতে এলার্জি থাকলেও অনেকে উপসর্গ দেখে মনে করে তার Cat Allergy আছে।

বিড়ালে এলার্জি (Cat Allergy) থাকলে করণীয়

আপনি যদি বিড়াল পুষতে চান এবং আপনার Cat Allergy থাকে সেক্ষেত্রে আপনাকে একটু সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।

  • প্রথমেই vet এর সাথে যোগাযোগ করুন এবং আসলেই Cat Allergy আছে কিনা তা নিশ্চিত হতে Allergy test করুন। তার পরামর্শ অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ওষুধ সেবন করুন।
  • শোবার ঘর থেকে বিড়ালকে দূরে রাখুন।
  • কম লোমওয়ালা জাতের বিড়াল Adopt করুন।
  • বিড়ালকে আদর করে সঙ্গে সঙ্গে হাত ধুয়ে ফেলুন।
  • ঘর নিয়মিত ঝেড়ে মুছে পরিষ্কার রাখুন। যাতে বাতাসে বিড়ালের লোম না উড়ে।
  • ঘরের অন্য কাউকে দিয়ে বিড়ালকে নিয়মিত Grooming করান, তাহলে সব আলগা লোম পড়ে যাবে।
  • অ্যাজমা রোগী হলে সবসময় ইনহেলার সাথে রাখুন।
  • ঘরের দরজা জানালা খুলে ঘরে বাতাস চলাচলের ভাল ব্যবস্থা করতে হবে।
friendly cat

বিড়াল ছানার সাথে আপনার বন্ধুত্ব কিভাবে হবে?

অনেক দিন থেকেই ভাবছেন একটা বিড়াল পুষবেন তাই হঠাৎ করে একটা বিড়াল ছানা নিয়ে আসলেন। সে এখন আপনার পরিবারের একজন সদস্য। তাই তার সাথে আপনার সম্পর্কটা হতে হবে বিশ্বাসের। আর এই বিশ্বস্ততা অর্জনের জন্য আপনাকে প্রতিদিন কিছুটা সময় আপনার বিড়াল ছানাকে দিতে হবে। আপনি আপনার বিড়াল ছানার সাথে কমপক্ষে ১৫ মিনিট করে দিনে দুই থেকে তিন বার সময় কাটান। আর আপনাদের মধ্যে bonding strong হবে খেলাধুলার মাধ্যমে। এরজন্য আপনার বিড়াল ছানাকে নানা রকম pet toy কিনে দিতে পারেন। যখন আপনার বিড়াল ছানার সাথে খেলাধুলা করবেন তখন আপনার মূল্যবান কোনো জিনিস বা ভেঙ্গে যেতে পারে এমন জিনিস বা বিড়াল ছানা ব্যাথা পেতে পারে এমন কিছু সরিয়ে রাখুন।

মনে রাখবেন, আপনি যদি ফুলটাইম চাকরিজিবি হন বা দিনের অধিকাংশ সময় বাহিরে থাকেন তাহলে একটি বিড়াল ছানা না নিয়ে অবশ্যই একজোড়া বিড়াল ছানা নিবেন যাতে করে তাদের খেলার সঙ্গী থাকে। তাহলে তারা অনেকটা একাকীত্ব থেকে মুক্তি পাবে।

আপনার বিড়াল socialised হয়েছে যখন বুঝতে পারবেন তখন তাকে জড়িয়ে ধরুন, তার সাথে cuddle করুন। এতে করে আপনার সাথে আপনার বিড়ালের understanding আরও strong হবে। এরপর আপনার ফ্রেন্ডদের ইনভাইট করুন আপনার বিড়ালে সাথে interact করার জন্য। যত বেশী মানুষের সাথে মিশবে আপনার বিড়াল ততবেশী social হয়ে বেড়ে উঠবে।

তবে বিড়ালের সাথে interact এর সময় কিছু জিনিস আপনাকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে। খেলাধুলা করার সময় কখনোই আপনার হাত বা পা নিয়ে খেলা করতে দিবেন না। বিড়াল ছানা যখন আপনার হাত-পা নিয়ে খেলা করবে তখন scratch করা বা কামড়ানোটা সে খেলা হিসেবে শিখবে। কিন্তু যখন বড় হবে তখন ফুল সাইজ দাঁত ও নখ দিয়ে scratch করা বা কামড়ানো বিপদজনক অভ্যাসে পরিনত হবে।

আপনাকে অবশ্যই আপনার বিড়াল ছানার বিভিন্ন রিএকশনের দিকে খেয়াল রাখতে হবে। বিড়াল ছানা কোনো কিছুতে uncomfortable হলে তখন তাকে কিছুতেই সেই কাজটার জন্য জোরাজুরি করা যাবে না। নতুন মানুষের প্রতি ভীতি থাকলে তাকে ধীরে ধীরে অভ্যস্ত করাতে হবে। কোনো সঠিক কাজ করলে বা নতুন কিছু শিখলে তাকে treat দিন। এভাবেই আপনার বিড়াল ছানাটি আপনার সাথে বিশ্বাসের বন্ধনে আবদ্ধ হবে।

cat purring

বিড়াল কেন purr / গরগর শব্দ করে ?

একটি মা বিড়াল যখন তার বাচ্চা কে আদর করে/nursing করে, তখন বিড়ালছানা মূলত গরগর আওয়াজ এর মাধ্যমে তার মাকে বলতে চায় যে “সব ঠিক আছে”। কোনও সমস্যা ছাড়াই বাচ্চাটি তখন গরগর করে এবং মা বিড়ালটি ও আদর বুঝাতে মাঝে মাঝে একই রকম শব্দ করে।

একটি বড় বিড়াল খেলার জন্য অথবা অন্য বিড়াল এর কাছে যাওয়ার জন্য ও গরগর করে থাকে। তারা একে অন্যর সাথে যোগাযোগ করার জন্য ও এমন করে থাকে এবং সন্তুষ্ট হলেও গরগর আওয়াজ করে।

কিন্তু মাঝে মাঝে তারা অসুবিধা হলেও গরগর করে। ব্যাথা পেলে, রেগে গেলে কিংবা অসুস্থ হলে গরগর করে নিজেদের কে শান্ত করার জন্য। কিন্তু এই গরগর শব্দটা একটু অন্যরকম হয়ে থাকে।

cat awake all night

আপনার বিড়াল কি সারারাত জেগে থাকছে?

বিড়াল নিশাচর কারণ তারা রাতে জেগে থাকতে পছন্দ করে। দিনে 16 ঘন্টা পর্যন্ত ঘুমাতে পারে। বিড়াল মালিকদের বিড়াল সম্পর্কে সবচেয়ে সাধারণ অভিযোগ হল যে বিড়াল রাতে নিজেও জেগে থাকে, সাথে তাদেরও জাগিয়ে রাখে। কিছু অভ্যাস পরিবর্তন করলেই আপনার fur baby এবং আপনি রাতে ঘুমাতে পারবেন –

১) আপনার bed থেকে দূরে, একটু উষ্ণ ও আরামদায়ক জায়গা করে দিন।

২) দিনে খেলার সময় বাড়ান। ওদের busy রাখার জন্য Cat Toy দিয়ে রাখতে হবে। ওরা যাতে bore না হয় সেজন্য কয়েকদিন পরপর Toys গুলোর জায়গা পরিবর্তন করুন ।

৩) প্রতিদিন ঘুমানোর আগে কমপক্ষে ১৫ মিনিট ওদের সাথে খেলুন ।

8) খুব সকালে খাবার দেয়ার অভ্যাস করবেন না। সেক্ষেত্রে শুধুমাত্র খাবারের জন্য ওরা আপনাকে জাগাবে। Adult Cat কে পরিমিত পরিমান খাবার দিনে ২ বার দেয়ার অভ্যাস করা ভালো।

৫) রাতে আপনার বিড়ালের যেকোনো ধরনের activities কে প্রশ্রয় দিবেন না। এসময় ওদের ignore করলে আস্তে আস্তে ওরা বুঝতে পারবে এটা ঘুমানোর সময়।