বিড়ালের ডায়রিয়া হলে প্রাথমিকভাবে যা করনীয়

বিড়ালের ডায়রিয়া হলে যত দ্রুত সম্ভব প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। এ অবস্থায় বিড়াল খাওয়া বন্ধ করে দেয় এবং দ্রুত পানিশূন্য হয়ে যায়। তাই প্রথমেই বুঝতে হবে কি কারনে পেট খারাপ হচ্ছে।

Continue reading

কুকুর অথবা বিড়াল কামড় দিলে যা করতে হবে এবং এর চিকিৎসা সম্পর্কিত কিছু কথা

বিড়াল অথবা কুকুর অনেক কারনেই মানুষকে আক্রমন করতে পারে, তাই বলে কুকুর পাগল হয়ে গিয়েছে অথবা র‍্যবিসে আক্রান্ত এমন না। অযথা প্রানিদের জ্বালাতন করা, মারা, মা কুকুরের বাচ্চাদের বিরক্ত করা উচিৎ নয়। দুর্ঘটনাবশত কামড় অথবা আঁচর লেগে গেলে কিছু প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে নেওয়া উচিৎ।

Continue reading

Tick Flea নির্মূলে Frontline Spray এর গুরুত্ব এবং এটি ব্যবহারের নিয়ম

Frontline Spray ব্যবহার বিড়াল/কুকুরের Tick & Flea নির্মূলের জন্য সবচেয়ে কার্যকরী উপায়। Tick & Flea নির্মূলের জন্য মার্কেটে অনেক ধরনের পাউডার, shampoo, Spot-on flea treatment পাওয়া যায়। কিন্তু কোনটাই ১০০% Tick & Flea নির্মূল করতে পারে না। কিন্তু Frontline Spray  ২৪ ঘণ্টার ভিতরে ১০০% Tick & Flea  নির্মূল করে নিরাপদভাবে।

Continue reading

খরগোশের প্রয়োজনীয় খাদ্য তালিকা

অন্যান্য পশুদের মত খরগোশও বিভিন্ন ধরনের মজাদার খাবার খেতে পছন্দ করে। নিয়মিত পুষ্টিকর ও সুষমখাদ্য আপনার প্রিয় খরগোশটিকে সুস্থসবল রাখতে সাহায্য করে। দেখে নিন কি কি খাদ্য আপনার খরগোশের খাদ্য তালিকায় রাখা উচিৎ।

Continue reading

বিড়ালকে বিভিন্ন রোগ থেকে নিরাপদে রাখার উপায়

অনেকেই আজকাল পোষাপ্রাণী হিসেবে বিড়ালকে নির্বাচন করছেন। লালন পালনে সুবিধা এবং দেখতে খুব সুন্দর এবং আদুরে এই প্রাণীটি একটু খাবার এবং আশ্রয় পেলেই সহজে পোষ মেনে যায়। আপনার প্রিয় বিড়ালটি অসুস্থ যাতে না হয় সে দিকে সবসময় খেয়াল রাখতে হবে। মনে রাখবেন বিড়াল খুব সংবেদনশীল প্রাণী, একটু অসুস্থতায় তাদের মৃত্যু হতে পারে।

Continue reading

বিড়ালের নখ কাটবেন কিভাবে?

বিড়ালের নখ কি কাটা যাবে?
হ্যাঁ, বিড়ালের নখ কাটা যাবে। কিন্তু খুবই সামান্য পরিমানে trim করতে হবে। নখের সামান্য একটু ভিতরের দিকে মাংস থাকে, তাই সতর্কতার সাথে কাটতে হবে যেন কোন ভাবেই ঐ পর্যন্ত না কাটা হয় তাহলে রক্তক্ষরণ শুরু হবে।

Continue reading

একটি মা বিড়াল এবং বাচ্চাদের যত্ন

একটি বিড়াল যখন ছোট ছোট সুন্দর বাচ্চা দেয়, তখন তারা চায় একটু নিরাপদস্থান, নিয়মিত খাবার এবং একটু ভালোবাসা। হোক সে Stray cat অথবা ঘরে পালা বিড়াল, বাচ্চাদের সুস্থভাবে বেড়ে তোলার জন্য তখন তার চাই একটু বাড়তি যত্ন। সৌভাগ্যবশত, মা বিড়ালের খুব একটা মানুষের সাহায্যের প্রয়োজন হয় না। তবে আপনার উচিৎ অবশ্যই তার পাশে থেকে তাকে একটু যত্ন করা।

Continue reading

কিভাবে আপনার পোষা বিড়ালের সাথে নতুন বিড়ালের পরিচয় করিয়ে দিবেন

আপনার বাসায় আদরের একটি বিড়াল আছে, কিন্তু আপনি তাকে ঠিকভাবে সময় দিতে পাচ্ছেন না তাই সে মন খারাপ করে থাকে। চিন্তা করলেন ওর খেলার সাথি হিসেবে আরেকটি বিড়াল অ্যাডপট করলে কেমন হয়? কিন্তু নতুন বিড়ালটি আনার পরে দেখলেন দুইজন দুইজন কে মোটেও সহ্য করতে পারছে না, দেখলেই মারার জন্য ঝাপিয়ে পড়ছে, হিস হিস শব্দ করে একজন অন্যজনকে ভয় দেখাচ্ছে। ভয় পাবেন না এটাই স্বাভাবিক।

Continue reading

কুকুরের Vaccine কেন এবং কখন দিবেন?

Vaccine(টিকা) কি?

কুকুরের বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করার জন্য বিভিন্ন ধরনের vaccine রয়েছে। vaccine মানে হচ্ছে প্রতিষেধক যা কুকুরের শরীরে antibodies তৈরি করে এবং রোগ-জীবাণু, ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া ইত্যাদির বিরুদ্ধে লড়াই করতে সাহায্য করে।

Continue reading

Pregnant বিড়ালের লক্ষণসমূহ এবং এর যত্ন

বিড়াল কত দিন Pregnant (গর্ভবতী) থাকে?
বিড়ালের Pregnancy এর সময় হচ্ছে ৬৩-৬৫দিন। তবে মাঝে মধ্যে এর তারতম্য হয়ে ৬০-৭০দিন হয়, যেটা স্বাভাবিক। একটি pregnant বিড়ালকে “Queen” বলা হয়।

বিড়ালের Pregnancy এর লক্ষণ কি কি?pregnent-cat-care-1
মানুষের মতো, বিড়াল blood বা urine পরীক্ষার মাধ্যমে Pregnancy নির্ধারণ করা সম্ভব নয়. তবে কিছু লক্ষন আছে, যার মাধ্যমে আপনার বিড়াল Pregnancy নিশ্চিত হওয়া যায়। লক্ষণগুলো হল:
• Pregnancy এর তৃতীয় সপ্তাহের বিড়ালের Breast এর বৃদ্ধি হবে এবং Nipple গোলাপী হয়ে যাবে। এটি ‘Pinking up’ হিসাবে পরিচিত।
• Pregnancy চতুর্থ সপ্তাহে বিড়ালের ওজন বেড়ে যায় এবং শরীরে তা দৃশ্যমান হয়।
• Vet দ্বারা check-up করালে ১৭-২৫ দিনের মধ্যে বিড়ালের পেটের মধ্যে প্রানের স্পন্দন পাবে এবং Pregnancy নিশ্চিত করতে পারবে।(এই পরীক্ষাটি বাসায় করা উচিৎ নয়, এতে বিড়ালের miscarriage অথবা বাচ্চার growth এ সমস্যা হতে পারে। X-ray অথবা Ultrasonography এর মাধ্যমেও Pregnancy নিশ্চিত হওয়া যায়)
• যদিও এটা খুব কম দেখা যায়, অনেক বিড়াল এ সময়ে অসুস্থতা অনুভব করতে পারে Pregnancy এর তৃতীয় সপ্তাহের প্রায় তাদের খাবার গ্রহণ বন্ধ হয়ে যেতে পারে এবং বমি হতে পারে। দীর্ঘদিন অরুচি থাকলে অবশ্যই Vet এর সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

Pregnant বিড়ালের বিশেষ যত্ন
একটি pregnant বিড়ালের খাবারের দিকে বিশেষ যত্ন নেওয়া প্রয়োজন। এসময় একটি Pregnant বিড়ালের খাবারের চাহিদা ৫০গুন বেশি বেড়ে যায়। এসময় সঠিক পরিমানে পুষ্টিকর খাবার খাওয়াতে হবে এবং আলাদা ভাবে যত্ন নিতে হবে। Vet পরামর্শ দেয় Kitten Food খাওয়ানোর জন্য কারন এতে অধিক পরিমানে ক্যালসিয়াম এবং ভিটামিন থাকে। এর পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের মাছ, মুরগির মাংস, গরুর মাংস, ডিম, Cat wet food, Cat dry food ইত্যাদি দিতে হবে। সাথে প্রচুর পরিমানে বিশুদ্ধ পানি খেতে দিতে হবে। যেহেতু বিড়াল মাংসাশী প্রাণী তাই ভাত দিলেও অল্প ভাতের সাথে বেশি মাংস মিশিয়ে খাওয়াতে হবে। তবে খাবারটি অবশ্যই তেল , মশলা , লবন , চিনি, পেঁয়াজ , রসুন ছাড়া শুধু পানিতে সেদ্ধ করে দিতে হবে। কাঁচা মাছ মাংস না খাওয়ানো ভালো কারন এতে ব্যাকটেরিয়া থাকে ফলে বিড়াল রোগে আক্রান্ত হয়।

লক্ষ্য রাখতে হবেঃ

• পরিমানে অনেক বেশি খাবার এবং অতিরিক্ত স্বাস্থ্য pregnant বিড়ালের জন্য ক্ষতিকর।
• মরা প্রাণী এবং আজেবাজে কিছু যা খেলে পেট খারাপ হয়, এমন কিছু যাতে না খায় সে দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।
• Pregnancy এর শেষের দুই সপ্তাহ তাকে ঘরের ভেতরে রাখা উচিৎ।
• সাবধানে রাখতে হবে যাতে পেটে আঘাত না পায় অথবা অন্য বিড়ালের সাথে মারামারি না করে।
• Pregnancy এর প্রথম দিকে এবং শেষের দিকে vet দ্বারা Check-up করানো উচিৎ।

একটি মা বিড়াল এবং বাচ্চাদের যত্ন

একটি বিড়াল যখন ছোট ছোট সুন্দর বাচ্চা দেয়, তখন তারা চায় একটু নিরাপদস্থান, নিয়মিত খাবার এবং একটু ভালোবাসা। হোক সে Stray cat অথবা ঘরে পালা বিড়াল, বাচ্চাদের সুস্থভাবে বেড়ে তোলার জন্য তখন তার চাই একটু বাড়তি যত্ন। সৌভাগ্যবশত, মা বিড়ালের খুব একটা মানুষের সাহায্যের প্রয়োজন হয় না। তবে আপনার উচিৎ অবশ্যই তার পাশে থেকে তাকে একটু যত্ন করা।

মানুষের কোলাহল থেকে দূরে, ঘরের একপাশে একটি নিরাপদ জায়গায় মা ও বাচ্চাদের জন্য বিছানা করে দিতে হবে। একটি বাক্সে, ঝুড়িতে অথবা বড় আকারের খাঁচার ভিতর কিছু নরম কাপড় বিছিয়ে দিতে হবে। এসময় তারা মানুষের উপস্থিতি পছন্দ করে না এবং নিরাপত্তাহীনতায় ভোগে।স্থান পছন্দ না হলে মা বিড়াল বাচ্চাদের মুখে করে নিয়ে অন্য স্থানে চলে যায়। শীতকাল হলে ঘরের ভিতরে উষ্ণ কোনস্থানে রাখতে হবে।এ সময় বাড়িতে অন্য বিড়াল থাকলে তাদেরকে আলাদা রুমে রাখা উচিৎ।

care-of-mom-cat-2এ সময় মা বিড়ালটি খুব সহজেই যাতায়াত করতে পারে এবং তার কাছাকাছি এমন কোন স্থানে খাবার, পানি ও লিটারবক্স দিতে হবে। ২-৩ দিনের মধ্যে তার খাবারের পরিমান ৪গুন বেড়ে যায়। এসময় তাকে পর্যাপ্ত পরিমানে Cat Wet Food, Cat Dry Food, মাছ, মাংস এবং পর্যাপ্ত পরিমানে পানি খাওয়াতে হবে। পুষ্টিকর এবং পরিমানে বেশি খাবার খাওয়ালে বাচ্চারা স্বাস্থ্যবান এবং সুস্থ হয়। তাই মা বিড়াল অনেক ব্যস্ত থাকে তাই তার খুব কাছাকাছি খাবার দিতে হবে।

খেয়াল রাখতে হবে-
বাচ্চারা প্রথম ৩-৪ সপ্তাহ শুধু মায়ের দুধ এ খাবে এবং প্রচুর ঘুমায়। এ সময় মা বিড়াল প্রতি ১-৩ ঘণ্টা পর পর বাচ্চাদের পরিচর্যা করে । বাচ্চারা তখন pee ও poop খুব কম করে। তবুও ১-২দিন পর পর তাদের বিছানা পরিষ্কার করে দিতে হবে। ৪সপ্তাহ বয়সে তারা নিজে নিজে শক্ত খাবার খাওয়া শুরু করে, তখন তারা নিজেরাই লিটার বক্স এ গিয়ে লিটার ব্যবহার করতে পারে।
• বাচ্চা হওয়ার পরে ১-২সপ্তাহের মধ্যে বিড়াল mating করলে আবার pregnant হতে পারে। তাই ছেলে বিড়ালের কাছ থেকে তাকে দূরে রাখতে হবে।
• বাচ্চা বিড়ালের গায়ে Tick & Flea থাকলে খুব দ্রুত রক্তশূন্য হয়ে পড়ে, তাই মা বিড়ালকে এবং বাচ্চাদের Tick & Flea মুক্ত রাখতে হবে।
• সব বাচ্চারা একরকমভাবে বড় হচ্ছে কিনা খেয়াল রাখতে হবে। অনেক বিড়াল অপুষ্টিতে ভোগে ফলে সমানভাবে বড় হয় না, তাদেরকে অবশ্যই Vet এর কাছে যেতে নিয়ে হবে।