বিড়ালের ডায়রিয়া হলে প্রাথমিকভাবে যা করনীয়

বিড়ালের ডায়রিয়া হলে যত দ্রুত সম্ভব প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। এ অবস্থায় বিড়াল খাওয়া বন্ধ করে দেয় এবং দ্রুত পানিশূন্য হয়ে যায়। তাই প্রথমেই বুঝতে হবে কি কারনে পেট খারাপ হচ্ছে। নিচে পেট খারাপের কিছু কারন দেওয়া হলঃ
১। গরুর দুধ ঘন করে খেলে।
২। নতুন করে Cat Food খাওয়া অথবা Cat Food এর Brand পরিবর্তন করলে।
৩। মাত্রা অতিরিক্ত খাবার খেলে।
৪। হটাৎ করে (অভ্যাস না থাকলে) কাঁচা মাছ অথবা মাংস খেলে। অতিরিক্ত ঘাস বা লতা জাতীয় পাতা খেলে।
৫। পোকা মারার স্প্রে, শ্যাম্পু, পাউডার অথবা ওষুধ জাতীয় কিছু মুখে গেলে।
৬। কৃমির কারনে।
৭। জ্বর অথবা অন্য কোন অসুখ এর কারনে।
করণীয়:
## প্রথমেই প্রাথমিক চিকিৎসা হিসেবে স্যলাইন খাওয়াতে হবে। মানুষের ওরস্যলাইনকে পরিমানমত অল্প পানিতে গুলিয়ে অথবা রাইস স্যলাইন রান্না করে ১/২ ঘণ্টা পর পর ২ সিরিঞ্জ করে খাওয়াতে হবে। খেতে না চাইলে ওয়েট ফুড অথবা মাছ মিশিয়ে ফ্লেভার বানিয়ে খাওয়াতে হবে অথবা সিরিঞ্জ এবং ড্রপার দিয়ে জোর করে খাওয়াতে হবে। Petme Probiotic খাবারের সাথে মিশিয়ে দিলে খুব ভাল কাজ করবে। এটি খুব দ্রুত পানিশূন্যতা দূর করে এবং পায়খানা বন্ধ করে এবং কোন সাইড ইফেক্ট নেই। এভাবে ১/২ দিনের মধ্যেই পাতলা পায়খানা হলে তা কমে যাবে। কিন্তু ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে যদি না কমে তাহলে অবশ্যই কোন ভেট এর সাথে যোগাযোগ করে ডায়রিয়া কমানোর জন্য ওষুধ খাওয়াতে হবে।
## এসময় সেদ্ধ মুরগীর মাংস এবং মাংস সেদ্ধ পানি, মিষ্টিকুমড়া সেদ্ধ এসব খাবার দেওয়া উচিৎ। মনে রাখতে হবে ভাত, মা্ছ,‌ মাংস যাই দেয়া হোক না কেন, ব্লেনড করে নরম করে দিতে হবে।
## যদি গরুর দুধের কারনে হয় তাহলে অবশ্যই সেটা দেওয়া বন্ধ করতে হবে। সম্ভব না হলে সমান পরিমান পানি মিশিয়ে তারপর খাওয়াতে হবে।
## প্রথমবার Dry Food খাওয়ালে পেট খারাপ হতে পারে, এতে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। ২-১দিনের মধ্যে এটি ঠিক হয়ে যায়। তখন খুব অল্প পরিমানে দিতে হবে অথবা পেট ভাল হওয়া পর্যন্ত Dry Food দেয়া বন্ধ রাখতে হবে। আবার Brand পরিবর্তন করলে হতে পারে। তখন পুরনো খাবারের সাথে মিশিয়ে আস্তে আস্তে অভ্যাস করতে হবে।
## যারা সব সময় সেদ্ধ এবং রান্না করা খাবার খায় সে সব বিড়াল কাঁচা খাবার খেলে বমি এবং পাতলা পায়খানা করে। সুতরাং এমন হলে সাথে সাথে কাঁচা খাবার দেয়া বন্ধ করতে হবে।
## অনেক সময় কৃমি হলে পাতলা পায়খানা আর বমি হয়। পায়খানার মধ্যে কৃমি দেখা যায়। তখন খুব দ্রুত ভেটের পরামর্শ অনুযায়ী কৃমির ওষুধ খাওয়াতে হবে। জ্বর অথবা অন্য কোন শারীরিক সমস্যার জন্য হলে অবশ্যই ভেটের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ খাওয়াতে হবে।
উপরোক্ত কারন ছাড়াও বিভিন্ন কারনে বিড়ালের ডায়রিয়া হতে পারে। বদহজমের কারনে অথবা বিভিন্ন কারনে potty নরম হতে পারে। দুর্গন্ধযুক্ত সাথে মিউকাস অথবা হালকা রক্ত যেতে পারে। বার বার পাতলা পায়খানা হলে পানিশূন্যতা দেখা দিতে পারে তাই দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া জরুরী।